আল্লাহকে পেতে মাধ্যম গ্রহণ

আল্লাহকে পেতে কোন মাধ্যম লাগে না।

পবিত্র কোরআনেই এর দলিল বিদ্যমান রয়েছে –
✔দলিল ১:
ﺇﻳﺎﻙﻧﻌﺒﺪﻭﺇﻳﺎﻙﻧﺴﺘﻌﻴﻦ
আমরা একমাত্র তোমারই ইবাদাত
করি এবং একমাত্র তোমারই
কাছে সাহায্য চাই
[সূরা ফাতিহা ৪]
✔দলিল ২:
ﻭﺇﺫﺍ ﺳﺄﻟﻚﻋﺒﺎﺩﻱ ﻋﻨﻲ ﻓﺈﻧﻲ ﻗﺮﻳﺐﺃﺟﻴﺐﺩﻋﻮﺓ
ﺍﻟﺪﺍﻉﺇﺫﺍ ﺩﻋﺎﻥﻓﻠﻴﺴﺘﺠﻴﺐﻭﺍ ﻟﻲ ﻭﻟﻴﺆﻣﻨﻮﺍ ﺑﻲ ﻟﻌﻠﻬﻢ
ﻳﺮﺷﺪﻭﻥ
আর হে নবী! আমার বান্দা যদি আপনার কাছে আমার সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে,তাহলে তাদেরকে বলে দিন,আমি তাদের কাছেই আছি৷যে আমাকে ডাকে আমি তার ডাক শুনি এবং জবাব দেই, কাজেই
তাদের আমার আহবানে সাড়া দেয়া এবং আমার
ওপর ঈমান আনা উচিতএকথা আপনি তাদের শুনিয়ে দিন, হয়তো তারা সত্য-সরল পথের সন্ধান
পাবে৷[সূরা বাক্বরা ১৮৬]
✔ দলিল ৩:
ﻭﻟﺎ ﺗﺪﻉﻣﻦ ﺩﻭﻥﺍﻟﻠﻪﻣﺎ ﻟﺎ ﻳﻨﻔﻌﻚﻭﻟﺎ ﻳﻀﺮﻙﻓﺈﻥ
ﻓﻌﻠﺖﻓﺈﻧﻚﺇﺫﺍ ﻣﻦﺍﻟﻈﺎﻟﻤﻴﻦ
আর আল্লাহকে বাদ দিয়ে এমন কোন সত্তাকে ডেকো না,যে তোমার না কোন উপকার করতে না ক্ষতি করতে পারে৷যদি তুমি এমনিটি করো তাহলে জালেমদের দলভুক্ত হবে৷[সূরা ইউনূস ১০৬]
✔ দলিল ৪:
ﺇﻧﻤﺎ ﺗﻌﺒﺪﻭﻥﻣﻦ ﺩﻭﻥﺍﻟﻠﻪﺃﻭﺛﺎﻧﺎ ﻭﺗﺨﻠﻘﻮﻥﺇﻓﻜﺎﺇﻥ
ﺍﻟﺬﻳﻦﺗﻌﺒﺪﻭﻥﻣﻦ ﺩﻭﻥﺍﻟﻠﻪﻟﺎ ﻳﻤﻠﻜﻮﻥﻟﻜﻢﺭﺯﻗﺎ ﻓﺎﺑﺘﻐﻮﺍ
ﻋﻨﺪﺍﻟﻠﻪﺍﻟﺮﺯﻕﻭﺍﻋﺒﺪﻭﻩﻭﺍﺷﻜﺮﻭﺍ ﻟﻪﺇﻟﻴﻪﺗﺮﺟﻌﻮﻥ
তোমরা আল্লাহকে বাদ দিয়ে যাদেরকে পূজা করছো তারাতো নিছক মূর্তি আর তোমরা একটি মিথ্যা তৈরি করছো৷ আসলে আল্লাহকে বাদ দিয়ে যাদেরকে তোমরা পূজা করো তারা তোমাদের কোন রিযিকও দেবার ক্ষমতা রাখে না, আল্লাহর কাছে রিযিক চাও, তাঁরই বন্দেগী করো এবং তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করো, তারই দিকে তোমাদের ফিরে যেতে হবে৷
[সূরা আনকাবুত ১৭]
✔দলিল ৫:
ﻭﻗﺎﻝﺭﺑﻜﻢﺍﺩﻋﻮﻧﻲ ﺃﺳﺘﺠﺐﻟﻜﻢﺇﻥﺍﻟﺬﻳﻦﻳﺴﺘﻜﺒﺮﻭﻥ
ﻋﻦﻋﺒﺎﺩﺗﻲ ﺳﻴﺪﺧﻠﻮﻥﺟﻬﻨﻢﺩﺍﺧﺮﻳﻦ
আপনার রব বলেন: আমাকে ডাকো৷
আমি তোমাদের দোয়া কবুল করবো৷
যেসব মানুষ গর্বের কারণে আমার দাসত্ব থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয় তারা অচিরেই লাঞ্ছিত ও অপমানিত হয়ে জাহান্নামে প্রবেশ করবে৷
[সূরা মুমিন ৬০]
✔ দলিল ৬:
ﻭﻟﻘﺪﻧﺎﺩﺍﻧﺎ ﻧﻮﺡﻓﻠﻨﻌﻢﺍﻟﻤﺠﻴﺒﻮﻥ
অর্থ-নূহ আমাকে ডেকেছিল (ইতিপূর্বে), দেখুন
তাহলে আমি ছিলাম কত ভালো জওয়াবদাতা৷
[সূরা সাফ্ফাত ৭৫]
এখন তাহলে প্রশ্ন থেকে যায়
আল্লাহকে পেতে হলে কি করতে হবে? তার উত্তর
হচ্ছে আল্লাহকে পেতে হলে,রাসুল কে আদর্শ হিসাবে গ্রহণ করতে হবে এবং তাঁর সুন্নাহ
মেনে চলতে হবে
দলিল-
✔ ﻗﻞﺇﻥ ﻛﻨﺘﻢﺗﺤﺒﻮﻥﺍﻟﻠﻪﻓﺎﺗﺒﻌﻮﻧﻲ ﻳﺤﺒﺒﻜﻢﺍﻟﻠﻪ
ﻭﻳﻐﻔﺮﻟﻜﻢﺫﻧﻮﺑﻜﻢﻭﺍﻟﻠﻪﻏﻔﻮﺭﺭﺣﻴﻢ
হে নবী! লোকদের বলে দিন ‘যদি তোমরা যথার্থই
আল্লাহকে ভালোবাসো,তাহলে আমার অনুসরণ করো, আল্লাহ তোমাদের ভালোবাসবেন
এবং তোমাদের গোহাহ মাফ করে দেবেন৷ তিনি বড়ই ক্ষমাশীল ও.করুণাময়৷’ তাদেরকে বলুন: আল্লাহ ও
রসূলের আনুগত্য করো৷
[সূরা আল ইমরান ৩১]
✔ ﻓﻠﺎ ﻭﺭﺑﻚﻟﺎ ﻳﺆﻣﻨﻮﻥﺣﺘﻰﻳﺤﻜﻤﻮﻙﻓﻴﻤﺎ ﺷﺠﺮ
ﺑﻴﻨﻬﻢﺛﻢﻟﺎ ﻳﺠﺪﻭﺍ ﻓﻲ ﺃﻧﻔﺴﻬﻢﺣﺮﺟﺎ ﻣﻤﺎ ﻗﻀﻴﺖ
ﻭﻳﺴﻠﻤﻮﺍ ﺗﺴﻠﻴﻤﺎ
না, হে মুহাম্মদ! তোমার রবের কসম,
এরা কখনো মুনিন হতে পারে না যতক্ষণ এদের
পারস্পারিক মতবিরোধের ক্ষেত্রে এরা তোমাকে ফায়সালাকারী হিসেবে মেনে না নেবে, তারপর
তুমি যা ফায়সালা করবে তার ব্যাপারে নিজেদের মনের মধ্য যে কোন প্রকার কুণ্ঠা ও দ্বিধার স্থান দেবে না,বরং সর্বান্তকরণে মেনে নেবে৷
[সুরা নিসা ৬৫]
✔ ﻟﻘﺪﻛﺎﻥﻟﻜﻢﻓﻲ ﺭﺳﻮﻝﺍﻟﻠﻪﺃﺳﻮﺓﺣﺴﻨﺔﻟﻤﻦ ﻛﺎﻥ
ﻳﺮﺟﻮ ﺍﻟﻠﻪﻭﺍﻟﻴﻮﻡﺍﻟﺂﺧﺮﻭﺫﻛﺮﺍﻟﻠﻪﻛﺜﻴﺮﺍ
আসলে তোমাদের জন্য আল্লাহর রসূলের মধ্যে ছিল একটি উত্তম আদর্শ.এমন প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য
যে আল্লাহ ও শেষ দিনের আকাঙ্ক্ষী এবং বেশী করে আল্লাহকে স্মরণ করে৷
[সূরা আহযাব ২১]
সুতরাং রাসুল ﷺ এর অনুসরণ ব্যতীত
আল্লাহকে পাওয়ার কোন উপায়
নাই!

Leave a Comment